রিজার্ভ ব্যাংক রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখলো

For Sharing

ভারতের রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর ডঃ উর্জিত প্যাটেলের নেতৃত্বে আর্থিক নীতি সংক্রান্ত কমিটি তাদের পঞ্চম দ্বিবার্ষিক নীতি সংক্রান্ত বিবৃতি জারী করেছে। কমিটি, রেপো রেট ৬ শতাংশে এবং রিভার্স রেপো রেট ৫.৭৫ শতাংশে অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে ২০১৬-১৭’র অর্থবর্ষে মুদ্রাস্ফীতি কিছুটা বেড়ে ৪.৩ শতাংশ থেকে ৪.৭ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

১৯৩৪ সালের রিজার্ভ ব্যাংক সংক্রান্ত আইনটি সংশোধন করে আর্থিক নীতি সংক্রান্ত কমিটি গঠন করা হয়;  যাতে সুদের হার পরিবর্তনের ক্ষেত্রে কেবলমাত্র গভর্নরের সিদ্ধান্তের পরিবর্তে একটি কমিটি  যৌথভাবে সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম হয়।

রেপো রেট ৬ শতাংশ রাখার কারণ মুদ্রাস্ফীতি ৪ শতাংশের মধ্যেই নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এছাড়া, সরকার GST সহ বিভিন্ন সংস্কারমূলক ব্যবস্থা হাতে নেওয়ায় বার্ষিক অর্থনৈতিক বিকাশ হার ২০১৮ সালে ৬.৭ শতাংশ হবে বলে অনুমান করা হয়েছে।

রিজার্ভ ব্যাংকের পঞ্চম দ্বিবার্ষিক নীতি সংক্রান্ত বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ১৭৮টি জিনিসের ওপর GST‘র হার ২৮ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১৮ শতাংশ  করায় এবং পেট্রো পণ্যের ওপর অন্তঃশুল্ক আংশিক কমিয়ে আনায় আর্থিক ঘাটতির আশঙ্কা রয়েছে। এছাড়া কিছু কিছু রাজ্যে কৃষি ঋণ মকুব করার  বিরূপ প্রভাবও  অর্থনীতির ওপর পড়বে। ফলে মুদ্রাস্ফীতি বাড়তে পারে।

রিজার্ভ ব্যাংকের আর্থিক নীতি সংক্রান্ত কমিটি তাদের রিপোর্টে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ আন্তর্জাতিক আর্থিক বাজারের ঘটনাবলীর কথাও উল্লেখ করেছে।

রেপো রেট কম করলেই যে অর্থনৈতিক বিকাশ ঘটবে এ ধারণা ভুল। তাই  রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর ডঃ উর্জিত প্যাটেলের রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত যথার্থ বলেই মনে হয়। ডঃ উর্জিত প্যাটেল বলেন, সুদের হার অপরিবর্তিত রাখার ক্ষেত্রে রিজার্ভ ব্যাংকের সিদ্ধান্ত খাদ্য ও জ্বালানীর মূল্য এবং মুদ্রাস্ফীতির ওপর তার প্রভাবের ওপর অনেকাংশে নির্ভর করেছে।

কর্পোরেট জগতও রিজার্ভ ব্যাংকের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ ব্যাংকের প্রধান জেনেট ইয়েলেনের সিদ্ধান্ত এবং আন্তর্জাতিক আর্থিক বাজারের প্রবণতা ভারতের রিজার্ভ ব্যাংকের আর্থিক নীতি সংক্রান্ত কমিটিকে তাদের বর্তমান হার নির্ধারণে বহুলাংশে প্রভাবিত করেছে।

তাই রিজার্ভ ব্যাংকের রেপো রেট ৬ শতাংশে এবং রিভার্স রেপো রেট ৫.৭৫ শতাংশে অপরিবর্তিত রাখার এই সিদ্ধান্ত, বিকাশ ও বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে  বলে আশা করা যায়। ( মূল রচনাঃ ডঃ লেখা চক্রবর্তী)