আজকের সংবাদপত্র থেকে

For Sharing

আজ পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা এবং বাংলাদেশের ঢাকা থেকে প্রকাশিত বাংলা সংবাদপত্রগুলিতে ভিন্ন ভিন্ন বিষয়  প্রাধান্য পেয়েছে।

কলকাতা থেকে প্রকাশিত ‘আনন্দবাজার’  পত্রিকা “তেল আর বন্দরে বিনিয়োগ  নিয়ে ইরানের জোড়া হুঁশিয়ারি ভারতকে” শীর্ষকে একটি খবর প্রকাশ করেছে। পত্রিকাটি লিখেছে,

“ইরানের ছাবাহার বন্দরে প্রস্তাবিত বিনিয়োগ না করায় ভারতকে হুঁশিয়ারি দিল তেহরান। পাশাপাশি, ইরান থেকে তেল আমদানি কমালে ভারত সে দেশ থেকে যে আর্থিক সুবিধে পেয়ে থাকে, তা-ও বন্ধ করে দেওয়া হবে। মঙ্গলবার একটি আলোচনাসভায় এই কথা জানালেন, ভারতে নিযুক্ত ইরানের উপ-রাষ্ট্রদূত মাসুদ রেজভানিয়ান রাহাঘি।

ইরানের ছাবাহার বন্দর ভারতের জন্য কৌশলগত ভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পাকিস্তানের সঙ্গে খারাপ কূটনৈতিক সম্পর্কের পাশাপাশি, সেই দেশের অভ্যন্তরীন টালমাটাল পরিস্থিতির জন্য করাচি-সহ পাক বন্দরগুলি ভারতের জন্য আর নিরাপদ নয়। অথচ, আফগানিস্তান, মধ্য এশিয়া, পারস্য উপসাগরে ভারতের পণ্য নিয়ে যাওয়া বৈদেশিক বাণিজ্যের জন্য একটি জরুরী বিষয়। সেই কারণেই ২০১৬ সালে ভারত-ইরান-আফগানিস্তান মিলে সমুদ্রবন্দর হিসেবে ছাবাহারকে ব্যবহার করার চুক্তি স্বাক্ষর করে। পাশাপাশি, রাখা হয়েছিল যাত্রী পরিবহণের বিষয়টিও। কিন্তু আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে প্রস্তাবিত বিনিয়োগ করছে না ভারত, এমনটাই দাবি ইরানি উপ রাষ্ট্রদূতের”।

কলকাতা থেকে প্রকাশিত ‘আজকাল’ পত্রিকা “পাকিস্তানে নির্বাচনী জনসভা কেঁপে উঠল আত্মঘাতী বিস্ফোরণে” শীর্ষকে একটি খবর  প্রকাশ করেছে। পত্রিকাটি লিখেছে,

“সাধারণ নির্বাচনের আগেই আত্মঘাতী বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল পাকিস্তান। আগামী ২৫ জুলাই পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন হবে। ঠিক তার ১৪ দিন আগেই পাকিস্তানের পেশোয়ারে এক নির্বাচনী জনসভায় আত্মঘাতী হামলা হল। যার ফলে এক রাজনৈতিক নেতা সহ–১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। এই ঘটনায় নিহতদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামি ন্যাশনাল পার্টি(এএনএম) প্রার্থী হারুন বিলোর। বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৫০ জন জখম হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।তালিবান জঙ্গি সংগঠনের পক্ষ থেকে এই বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করা হয়েছে বলে খবর।
পুলিস সূত্রে খবর, নির্বাচনী জনসভায় তখন প্রার্থীকে স্বাগত জানাতে দলের সমর্থক ও অনুরাগীরা বাজি পুড়িয়ে স্বাগত জানাচ্ছিলেন। সেই সময়ই ভিড়ে মিশে গিয়ে মঞ্চের দিকে এগিয়ে আসে আত্মঘাতী হামলাকারী। বিলোর সভাস্থলে পৌঁছনোর পরই সমর্থকদের উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার জন্য মঞ্চের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন বিলোর। তখনই মঞ্চের কাছে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে।
আগামী ২৫ জুলাইয়ের ভোটে পেশোয়ারের পিকে–৭৮ আসনের প্রার্থী ছিলেন এএনপি’‌র নেতা নিহত বিলোর। পেশোয়ারের পুলিস আধিকারিক কাজি জামিল জানান, আট কেজি টিএনটি বিস্ফোরক ব্যবহার করে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। বম্ব ডিসপোজাল স্কোয়াড জানিয়েছে, এটি একটি আত্মঘাতী বিস্ফোরণ। এই হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন পাকিস্তানের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি সর্দার মহম্মদ রাজা খান। একইসঙ্গে ঘটনাকে নিরাপত্তা বিভাগের দুর্বলতা বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি। কমিশনার বলেছেন, স্বচ্ছ নির্বাচন প্রক্রিয়া বানচালের লক্ষ্যে এই বিস্ফোরণ একটা ষড়যন্ত্র।
অন্যদিকে এএনপি নেতা মিলন ইফতিকর হুসেন অভিযোগ করেন, দলের প্রার্থীদের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ সরকার। তবে এই বিস্ফোরণের পিছনে রাজনৈতিক চক্রান্ত আছে কিনা তা নিয়ে সন্দিহান সবপক্ষই। এই ঘটনায় সেনা নামানো হয়েছে গোটা এলাকায়। ঘটনার তদন্তও করা হচ্ছে। তবে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন যে রক্তাক্ত হতে পারে এই ঘটনা থেকে তা মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা”।

বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত ‘কালের কণ্ঠ’  পত্রিকা তার অনলাইন সংস্করণে২০১৮ সালের এশিয়ার সেরা ১০ পর্যটন গন্তব্য” শীর্ষকে একটি খবর প্রকাশ করেছে। পত্রিকাটি লিখেছে,

“বিশ্বের নানা প্রান্তের বিখ্যাত কিংবা মনোরম নানা স্থান দেখতে পর্যটকরা ভিড় করে। তবে তাদের এ পছন্দ-অপছন্দ সর্বদা পরিবর্তিত হয়। আর এ পরিবর্তিত পছন্দকে তালিকাভুক্ত করে লোনলি প্ল্যানেট নামে একটি সংস্থা। প্রতিষ্ঠানটি এবার প্রকাশ করেছে এশিয়ার সবচেয়ে আকর্ষণীয় ১০ পর্যটন গন্তব্য।

এবারের সেরা ১০ গন্তব্য তালিকার শীর্ষস্থানে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার বুশান। এটি দক্ষিণ কোরিয়ার উপকূলীয় অঞ্চলে অবস্থিত দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। সেখানে যেতে সিউল থেকে প্রায় আড়াই ঘণ্টা সময় লাগে। সেখানকার ছবির মতো বিচ ও অসাধারণ সামুদ্রিক খাবারও পর্যটকদের আকর্ষণ করে।

ইন্দোনেশিয়ার কমোডো ন্যাশনাল পার্কে গেলে দেখা মিলবে কমোডো ড্রাগনের।

তালিকায় রয়েছে উজবেকিস্তানের নামও। সেখানে রয়েছে অপূর্ব সব মোজাইক করা মসজিদ ও সিল্ক রোডের সমৃদ্ধ ইতিহাস। তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভিয়েতনামের বিখ্যাত হো চি মিন সিটি।

লোনলি প্ল্যানেট বলছে তাদের দৃষ্টিতে সেরা এসব পর্যটন স্থানে গেলে আপনি ঠকবেন না। পর্যটকদের জন্য অত্যন্ত আকর্ষণীয় সব ব্যবস্থা রয়েছে এবারের তালিকার সবগুলো স্থানেই।

লোনলি প্ল্যানেটের দৃষ্টিতে ২০১৮ সালের এশিয়ার সেরা ১০ গন্তব্য-

১। বুশান, দক্ষিণ কোরিয়া

২। উজবেকিস্তান

৩। হো চি মিন সিটি, ভিয়েতনাম

৪। ওয়েস্টার্ন ঘাটস, ভারত

৫। নাগাসাকি, জাপান

৬। চিয়াং মাই, থাইল্যান্ড

৭। লুম্বিনি, নেপাল

৮। আরুগাম বে, শ্রীলংকা

৯। সিচুয়ান প্রদেশ, চীন

১০। কমোডো ন্যাশানাল পার্ক, ইন্দোনেশিয়া।

বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত ‘দৈনিক ইত্তেফাক’ পত্রিকা  “মধ্যপ্রাচ্যে দুই হাজার কোটি ডলার ঋণ দেবে চীন” শীর্ষক একটি খবর প্রকাশ করেছে। পত্রিকাটি লিখেছে,

“চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোকে দুই হাজার কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। একই সঙ্গে ঘোষণা দিয়েছেন, ওই অঞ্চলের দেশগুলোর জন্য ১০ কোটি ৬০ লাখ ডলার আর্থিক সহযোগিতা দেবে বেইজিং। মধ্যপ্রাচ্যের অর্থনীতির পুনরুজ্জীবনের জন্য চীনা প্রেসিডেন্টের ‘অয়েল অ্যান্ড গ্যাস প্লাস’ প্রকল্পের আওতায় এ ঋণ ও সহযোগিতা দেওয়া হবে। মঙ্গলবার বেইজিংয়ে ২১টি আরব রাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন চীনা প্রেসিডেন্ট।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, গত কয়েক বছরে মধ্যপ্রাচ্যের আরব দেশগুলোতে সক্রিয়তা বাড়িয়েছে চীন। দেশটির গুরুত্বপূর্ণ ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড’ পররাষ্ট্রনীতিতে বড় ধরনের ভূমিকা রয়েছে আরব দেশগুলোর। এই নীতির আওতায় চীন কেন্দ্রীয় ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যিক রুট নির্মাণ করবে।

সম্মেলনে শি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের অনেক নিরাপত্তা সমস্যা সমাধানের চাবিকাঠি হলো উন্নয়ন। আমাদের একে অন্যের প্রতি আচরণ খোলামেলা হওয়া উচিত, পার্থক্যকে ভয় নয়, সমস্যা এড়ানো নয় বরং পররাষ্ট্রনীতি ও উন্নয়ন কৌশল নিয়ে আলোচনা বৃদ্ধি করা উচিত।

চীনা প্রেসিডেন্ট জানান, ফিলিস্তিনের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য দেড় কোটি ডলার সহযোগিতার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে জর্ডান, লেবানন, সিরিয়া ও ইয়েমেনে ৯০ কোটি ১০ লাখ ডলার সহযোগিতা দেওয়া হয়েছে। চীন ও আরব দেশগুলোর ব্যাংকগুলোর একটি কনসোর্টিয়ামকে ৩০০ কোটি ডলার দেওয়া হবে।

রয়টার্স জানিয়েছে, ব্যাংক কনসোর্টিয়াম, আর্থিক সহযোগিতা ও ঋণের মধ্যকার সম্পর্ক কী হবে তা স্পষ্ট নয়। শি জানিয়েছেন, ঋণের অর্থ দিয়ে অর্থনৈতিক পুনর্গঠন ও শিল্পের পুনর্জাগরণে একটি পরিকল্পনা করা হবে। যাতে তেল, গ্যাস, পারমাণবিক ও ক্লিন এনার্জির ক্ষেত্রে সহযোগিতার বিষয় অন্তর্ভুক্ত থাকবে”।